ফ্লাটার: অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের ভবিষ্যৎ! – জ্যোতি চাকমা

হ্যালো! অ্যাপ ডেভেলপার হতে চান? ভাবছেন কোন প্লাটফর্মে কাজ করবেন? অ্যান্ড্রয়েড নাকি আইওএস (iOS)? কি শিখবেন – জাভা/কটলিন/অবজেক্টিক-সি/সুইফট্ (Swift)? সব প্রশ্নের উত্তর পেতে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন।

Android or iOS?

সাধারণত অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মে অ্যাপ তৈরির জন্য ব্যবহৃত হয় জাভা অথবা কটলিন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। আর আইওএস অর্থাৎ আইফোনের জন্য অ্যাপ তৈরিতে ব্যবহৃত হয় অবজেক্টিব-সি অথবা সুইফট্ কোড। অর্থাৎ এক‌ই অ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস – দুই প্লাটফর্মের জন্য অ্যাপ তৈরি করতে হলে আলাদা আলাদা প্রোগ্রামে কোড লিখতে হয়।

কিন্তু এমন কোনো ফ্রেম‌ওরার্ক আছে কি – যেই ফ্রেম‌ওয়ার্ক দিয়ে একবার একটি ল্যাঙ্গুয়েজে কোন লিখে একসাথে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস – এই দুই প্লাটফর্মের জন্য অ্যাপ তৈরি করা যায়???

Introducing Flutter

হ্যাঁ! এটাই ফ্লাটার (Flutter)। ফ্লাটার হল গুগলের তৈরি অ্যাপলিকেশন ডেভেলপ করার একটি ফ্রেম‌ওয়ার্ক। মূলত ডার্ট (Dart) প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে ফ্লাটার অ্যাপস্-গুলো তৈরি করা হয়। ফ্লাটার ব্যবহার করে একবার কোড লিখে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস – দুই প্লাটফর্মের জন্য অ্যাপ তৈরি করা যায়। এটি ফ্রি এবং ওপেন সোর্স। সবচেয়ে বড় কথা, আপনি এখান থেকে অ্যন্ড্রয়েড স্টুডিও-তে আইফোনের জন্য‌ও অ্যাপ তৈরি করতে পারবেন।

Fuchsia OS

হয়ত সবাই জানেন, গুগল নতুন একটি অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করছে যার নাম ফুসিয়া (Fuchsia)। বলা হচ্ছে এটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের উন্নত ভার্সন এবং এটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। আর মোবাইলের নতুন এই অপারেটিং সিস্টেমেটি তৈরি করা হচ্ছে ডার্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে। সুতরাং আপনি যদি ভালো ডার্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ আয়ত্ত করতে পারেন তাহলে গুগলের ভবিষ্যত অপারেটিং সিস্টেমের অনেক কিছুই আপনার জানা হয়ে যাবে। তাহলে দেরি কিসের??

Learn Flutter

ফ্লাটার ফ্রেম‌ওয়ার্কে কাজ করতে হলে আপনাকে ডার্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখতে হবে। ডার্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ অন্যান্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ-গুলোর তুলনায় অনেক সহজ। এটি ফ্রি এবং ওপেন সোর্স। যে কেউ এই ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে যেকোনো ধরনের অ্যাপস্ তৈরি করা যায়। এ বিষয়ে ইউটিউবে অনেক ভিডিও আছে। উন্মুক্ত এই প্লাটফর্মে চাইলেই অনেক কিছু শেখা যায়। আর এই ডার্ট প্রোগ্রামিং ও ফ্লাটার ফ্রেম‌ওয়ার্ক শিখে নিতে পারলে কত যে সুবিধা, তা উপরের অংশ পড়ে বুঝতে পেরেছেন। অ্যাপ ডেভেলপার হতে চাইলে আজ থেকে “ফ্লাটার” শেখা শুরু করে দিন।

ও হ্যাঁ! শেষ কথা বলি – “ফ্লাটার-ই হতে যাচ্ছে অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের ভবিষ্যৎ


Writer:

জ্যোতি চাকমা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষার্থী, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং

Add a Comment